top of page

সল্টলেক সেন্ট্রাল পার্কে সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদ ও সন্মার্গের আয়োজনে ৫০ ফুট রাবণের কুশপুত্তলিকা দাহন


কলকাতা, ২৪ অক্টোবর, ২০২৩: দশেরার সময় শহরে সবচেয়ে উঁচু কুশপুত্তলিকা পোড়ানোর ঐতিহ্য বজায় রেখে, সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদ কমিটি এবং সানমার্গ, কলকাতা সল্ট লেকের সেন্ট্রাল পার্ক এলাকায় ৫০ ফুট লম্বা রাবণ, ৪০ ফুট মেঘনাদ এবং কুম্ভকর্ণের কুশপুতুল দহন করল।





এই অনুষ্ঠানের মূল উদ্দেশ্য ছিল দুষ্টের দমন এবং শিষ্টের বিজয় উদযাপনের মাধ্যমে নাগরিকদের এবং পশ্চিমবঙ্গের সমৃদ্ধ সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের মধ্যে একটি প্রাণবন্ত সেতু নির্মাণ করা।





অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা ও সাংসদ দেব; দমকল প্রতিমন্ত্রী সুজিত বোস; বিধাননগর মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের চেয়ারপার্সন সব্যসাচী দত্ত; সানমার্গের পরিচালক রুচিকা গুপ্তা; সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদের সভাপতি সঞ্জয় আগরওয়াল; ললিত বেরিওয়ালা, সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদের ট্রাস্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান; অমিত পোদ্দার, সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদের সম্পাদক; উদিত টোডি, এক্সজিকিউটিভ ডিরেক্টর, লাক্স ইন্ডাস্ট্রিজ; সাকেত টোডি, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর, লাক্স ইন্ডাস্ট্রিজ এবং আরও অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব।





বার্ষিক আচার-অনুষ্ঠানের সাক্ষী হতে হাজার হাজার ভক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন - রাক্ষস রাজা রাবনের কুশপুত্তলিকা পোড়ানোর মধ্যে দিয়ে হিন্দু ধর্মাবলম্বী বহু মানুষ সারা ভারতে বাড়িতে বা মন্দিরে দেবতাদের উদ্দেশ্যে বিশেষ প্রার্থনা সভা এবং খাদ্য নৈবেদ্যর মাধ্যমে দশেরা পালন করেন। তাঁরা দানব রাজা রাবণের মূর্তি সহ বহিরঙ্গন মেলা এবং বৃহৎ কুচকাওয়াজও করে, যা সন্ধ্যায় বনফায়ারে পোড়ানো হয়। দেবী দুর্গার প্রতিমা জলে নিমজ্জিত করা হয় এই দিনে।





মিডিয়ার সঙ্গে আলাপচারিতায় সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদের -এর সভাপতি শ্রী সঞ্জয় আগরওয়াল বলেন, "মন্দের ওপর ভালোর জয় উদযাপনের জন্য আমরা সেন্ট্রাল পার্ক মাঠে বিশেষ ব্যবস্থা করেছিলাম। ৫০ ফুট উঁচু রাবণের মূর্তি পোড়ানোর পাশাপাশি অনুষ্ঠান চলাকালীন আমরা একটি মনোমুগ্ধকর ফায়ার শো-এর আয়োজন করেছি।"





এই উপলক্ষে সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদের ট্রাস্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান শ্রী ললিত বেরিওয়ালা বলেন, "এই বছর আমাদের দশেরা ইভেন্টের ১১তম বার্ষিকী পালিত হয়েছে, যা পূর্ব ভারতের বৃহত্তম উদযাপন হিসাবে পরিচিত। বিজয়া দশমী বার্ষিক দুর্গা পূজা উৎসবের সমাপ্তি এবং রাবণের মূর্তি ধ্বংসকে উদযাপন করে। অশুভতার উপর ধার্মিকতার বিজয়ের প্রতীক হিসাবে দেশব্যাপী জ্বলে ওঠে রাবণের কুশপুতুল। আমরা দর্শকদের মুগ্ধ করার জন্য বিভিন্ন অঞ্চল থেকে শিল্পীদের নিয়ে এসেছি। সাংস্কৃতিক পরিবেশনা ছাড়াও, কুশপুত্তলিকা পোড়ানোর আগে বেশ কয়েকটি পবিত্র আচার অনুষ্ঠানের উৎসাহী অংশগ্রহণকারী শ্রোতা ছিল ২৫,০০০ জনেরও বেশি।"





সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদ সম্পর্কে:

সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদ হল সমাজের সুবিধাবঞ্চিত শ্রেণীর জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের জন্য নিবেদিত একটি সংস্থা। বিদ্যালয়, দাতব্য চিকিৎসালয়, রক্তদান শিবির, বই বিতরণ অনুষ্ঠান, বিবাহ ইত্যাদি বিভিন্ন কার্যক্রমের মাধ্যমে এই সংস্থা তাদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও সংশ্লিষ্ট সেবার মতো সুবিধা প্রদান করে।


Edited By

Swarnali Goswami


Comentarios

Obtuvo 0 de 5 estrellas.
Aún no hay calificaciones

Agrega una calificación

Top Stories

bottom of page