top of page

ভারত এবং ইউকে সরকারের যৌথ উদ্যোগে ১৫ বছরের বেশি বয়স্ক ট্যাক্সিকে সবুজ যানে পরিবর্তন করার ভাবনা


কলকাতা, ২১ মার্চ: বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্স এবং ব্রিটিশ সরকারের যৌথ উদ্যোগে "অ্যাকসিলিরাটিং স্মার্ট পাওয়ার এন্ড রিনিউএবল এনার্জি ইন ইন্ডিয়া (ASPIRE)" শীর্ষক একটি আলোচনাচক্র অনুষ্ঠিত হয়। যেসব হলুদ ট্যাক্সির ১৫ বছর হয়ে গিয়েছে সেগুলিকে নতুন করে গড়ে তোলা বিষয়টি নিয়ে সেখানে একটি কর্মশালা করা হয়। সেখানে আলোচনার বিষয় ছিল, যেসব হলুদ ট্যাক্সির ১৫ বছর হয়ে গিয়েছে সেগুলিকে নতুন করে গড়ে তোলা হবে। সেগুলিকে ইলেকট্রিক যানবাহনে (EV) পরিবর্তন করা হবে। তাতে শহরে দূষণ কমবে। আর পরিবেশবান্ধব যানবাহন পাবে মহানগরী।

এই বিষয়ে বিদ্যুৎ দফতরের সচিব এস সুরেশ কুমার বলেন, ‘‌এই বিদ্যুৎ ইঞ্জিনের জেরে কলকাতার হলুদ ট্যাক্সির আয়ু বাড়বে। যেখানে ১৫ বছরের ট্যাক্সি বাতিলের নিয়ম চালু হয়েছে সেখানে এমন পদক্ষেপ তাৎপর্যপূর্ণ।’‌ বিদ্যুৎ সচিবের কথায়, ‘‌আমরা চাই ইভি সংস্থাগুলি বাংলা‌র মাটিতে কারবার শুরু করুক। রাজ্যে ২০০টি ইভি চার্জিং স্টেশন তৈরি হবে।’‌ খুব শীঘ্রই অর্থাৎ ২০২৫ সালে আড়াই হাজার ডি এবং ই–সিরিজের অ্যাম্বাসেডর বাতিলের তালিকায় ঢুকে পড়বে। তাই এই জরুরি উদ্যোগ।

এই ইস্যুতে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। অধিকাংশ ট্যাক্সি চালক পরিবর্তনের খবর পেলেও সেটা কেমন হবে তা জানতে না পেরে অজানা আশঙ্কায় ভুগছেন। এই খবরে ট্যাক্সি সংগঠনগুলির যুগ্ম সচিব সঞ্জীব রায় বলেন, ‘‌এটা খুব ভাল খবর যে ডিজেল চালিত ট্যাক্সিতে নতুন করে ইভি ইঞ্জিন লাগানো যাবে। তবে খরচ বেশি পড়লে তা বাতিলের সিদ্ধান্তই নেবে চালকেরা' এমনও বলেন তিনি।


Comentarios

Obtuvo 0 de 5 estrellas.
Aún no hay calificaciones

Agrega una calificación

Top Stories

bottom of page