top of page

এবার রথযাত্রার দিন পুরীর জগন্নাথ মন্দিরে থাকছে না ভিআইপি দর্শন পরিষেবার সুবিধা




২ জুলাই, ২০২৪: সামনেই রথযাত্রা। পুরীতে এই উৎসব উপলক্ষে দূর দূরান্ত থেকে ভক্ত সমাবেশ হয়। সাজ সাজ রব থাকে ওড়িশার এই শহরেও। রথযাত্রার দিন উপচে পড়া ভিড় থাকে জগন্নাথের একটু দর্শনলাভের আশায়। তার মাঝে থাকে যদিও ভিআইপি দর্শনার্থীও। আগামী ৭ জুলাই, রবিবার রথযাত্রা। সাধারণ ভক্তদের পাশাপাশি বেশি অর্থের বিনিময়ে ভিআইপিরা একটু ভালোভাবে এবং তুলনামূলক কম কষ্টের মাধ্যমে জগন্নাথ দেবের দর্শন করতে পারেন।

তবে এবার রথযাত্রার দিন পুরীর জগন্নাথ মন্দিরে থাকবে না VIP দর্শন পরিষেবার সুবিধা। রথের দিন মন্দিরে ভিআইপি দর্শন পরিষেবায় নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে ওড়িশা সরকারের পক্ষ থেকে। সকল পুণ্যার্থীদেরই তিন ভাইবোন তথা জগন্নাথ-বলরাম-সুভদ্রাকে দর্শনের জন্য মন্দিরের বাইরেই অপেক্ষা করতে হবে বলেছে ওই রাজ্যের সরকার। উল্লেখ্য, 'পাহান্দি' নামে শোভাযাত্রার সময় দেবতার দর্শনে মন্দিরের ভিতরে একটি নির্দিষ্ট স্থানে দাঁড়ানোর অনুমতি দেওয়া হত ভিআইপি দের। এই সময় গর্ভগৃহ থেকে বের করে বিগ্রহগুলিকে মন্দিরের বাইরে দাঁড়ানোর রথে তোলা হয়।

'পাহান্দি অনুষ্ঠানের সময় মন্দিরের ভিতর VIP-দের উপস্থিতি ও চলাফেরার জন্য রথযাত্রার আচার পালনে অনেকটাই বিলম্ব হয়। নির্বিঘ্নে ও সুষ্ঠুভাবে যাতে রথযাত্রার আচার পালন করা যায় সেই কারণেই এবার রথের দিন মন্দিরের ভিতরে ভিআইপি-দের প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে- জানিয়েছেন রাজ্যের আইন মন্ত্রী পৃথ্বীরাজ হরিচন্দন। এ বছর ওই একই দিনে নবযৌবন দর্শন ও নেত্র উৎসবও পালিত হবে।

সরকারের এই নিষেধাজ্ঞায় খুশি মন্দির কর্তৃপক্ষ। মন্দির কর্তৃপক্ষের মতে, এই নিষেধাজ্ঞার কারণে রথযাত্রার আচার-বিধি পালনে অনেকটাই সুবিধা হবে। রথযাত্রায় এমনিতেই প্রচুর ভিড় হয়। তার উপর মন্দিরের ভিতর ভিআইপি দর্শন চালু থাকায় বাড়তি চাপ থাকে মন্দির কর্তৃপক্ষের। এবার রথের দিন ভিআইপি দর্শনে নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ায় আচার-বিধি পালন অনেকটাই সুষ্ঠুভাবে পালন করা সম্ভব হবে।

স্নানযাত্রার ১৫ দিন পরেই আষাঢ় মাসের শুক্লা দ্বাদশী বা রথযাত্রার তিথি। সেবায়েতরা সকলে ঠিক করেছেন এবার আর মন্দিরে ঢুকে প্রভু জগন্নাথদেবের নবযৌবন বেশ দর্শন করবেন না ভক্তরা। জগন্নাথদেবের রথে আরোহণের অনুষ্ঠান দেখার টিকিটও বিক্রি করা হবে না।

Comments

Rated 0 out of 5 stars.
No ratings yet

Add a rating

Top Stories

bottom of page