top of page

অন্তর্বর্তীকালীন বাজেটে চমক কিছুই নেই। আত্মবিশ্বাসী সরকার, বলছেন বিশ্লেষকেরা


১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪: বৃহস্পতিবার সংসদে অন্তর্বর্তীকালীন বাজেট পেশ করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। লোকসভা নির্বাচনের আগে এটাই শেষ বাজেট পেশ বর্তমান সরকারের। বাজেটে বিশেষ জোর দেওয়া হল গরিব, যুব, মহিলা, অন্নদাতাদের উন্নয়নে। নির্মলা তাঁর ভাষণে বর্তমান সরকারের অতীতচারণ করতে গিয়ে দাবি করেছেন, গত ১০ বছরে ২৫ কোটি মানুষকে দারিদ্রসীমার উপরে নিয়ে আসা হয়েছে। চার কোটি কৃষক শস্যবিমার আওতায় এসেছেন। দেশে মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আসায় আর্থিক উন্নতি হয়েছে। একই সঙ্গে জি-২০ সম্মেলন পরিচালনায় সাফল্য প্রাপ্তির কথাও বলেছেন।

আয়কর সংক্রান্ত নতুন কোনও ঘোষণা এই বাজেটে করলেন না তিনি। তবে অন্তর্বর্তীকালীন বাজেটে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর অপরিবর্তিত রেখেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। পাশাপাশি আয়করে গরমিল মেটাতে বড় ছাড়ের কথা ঘোষণা করেছেন তিনি। ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত কর ছাড়া দিয়েছেন নির্মলা।

এছাড়া অন্তবর্তী বাজেটে দেশের পর্যটনের উপর বিশেষ জোর দেওয়ার কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। রাজ্যগুলিতে ধর্মীয় পর্যটন কেন্দ্র তৈরিতে দীর্ঘমেয়াদি ঋণ দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়। সেই সঙ্গে এদিন তিনি লাক্ষাদ্বীপের পর্যটকনের উন্নয়নের বিশেষ নজর দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন।

বাজেটে নারী ক্ষমতায়নে জোর। দেশের ৩ কোটি মহিলাকে ‘লাখপতি দিদি’ বানানোর ঘোষণা করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ২ কোটি। এই প্রকল্পে মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলিকে ড্রোন দেবে কেন্দ্র সরকার। তাঁদের ড্রোন চালানো এবং মেরামতির প্রশিক্ষণও দেওয়া হবে। এই ড্রোন ব্যবহার করা হবে কৃষিকাজে, বিশেষ করে কীটনাশক ও সার স্প্রে করার জন্য। এই ড্রোন মূলত কৃষকদের ভাড়া দেওয়া হবে, যা থেকে মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলি রোজগার বাড়বে।




তিনটি রেলওয়ে করিডর তৈরি হবে। শক্তি, খনিজ এবং সিমেন্ট করিডর হবে। এছাড়া বন্দরের সঙ্গে যোগাযোগের করিডর এবং ট্রাফিক ডেনসিটি করিডরও তৈরি হবে। ভারতীয় রেলের ৪০ হাজার সাধারণ বগিকে বন্দে ভারতের পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া হবে বলে আজ ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী। এদিকে সব রুটেই ট্রেনের স্পিড বাড়ানো হবে বলে দাবি করেন তিনি। গোটা দেশের মেট্রো রেলের উন্নয়ন হবে।

ছাদে সোলারাইজেশনের মাধ্যমে এক কোটি পরিবারকে প্রতি মাসে ৩০০ ইউনিট বিনামূল্যে বিদ্যুৎ দেওয়া হবে ঘোষণা করলেন অর্থমন্ত্রী। এর ফলে প্রতিবছর ১৫ থেকে ১৮ হাজার টাকা করে বাঁচবে বিদ্যুতের বিল বাবদ। আগামী ৫ বছরে আরও ২ কোটি বাড়ি তৈরি হবে।

আশাকর্মী এবং অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের আয়ুষ্মান ভারতের আওতায় আনার ঘোষণা করা হল বাজেটে। এবার থেকে ৯ থেকে ১৪ বছরের মেয়েদের সার্ভাইকাল ক্যানসারের টিকা দেওয়া হবে সরকারের তরফ থেকে।

এর পাশাপাশি উল্লেখযোগ্যভাবে আজ লোকসভায় নির্মলা বলেন, ‘‘আমরা দেশের পূর্বাঞ্চলকে বৃদ্ধির আওতায় আনতে চাই। পূর্বাঞ্চলের দিকে বিশেষ নজর দেওয়া হবে।’’

সীতারামন বাজেট বক্তৃতায় বলেছেন, ‘আমাদের প্রযুক্তি-প্রেমী যুবকদের জন্য এটি একটি সোনালী যুগ হবে। ৫০ বছরের সুদমুক্ত ঋণের সঙ্গে ১ লক্ষ কোটি টাকার একটি কর্পাস প্রতিষ্ঠিত হবে। এটি দীর্ঘ মেয়াদে এবং কম বা শূন্য সুদের হার সহ দীর্ঘমেয়াদী অর্থায়ন বা পুনঃঅর্থায়ন প্রদান করবে। এটি বেসরকারি খাতকে সূর্যোদয় ডোমেনে উল্লেখযোগ্যভাবে গবেষণা এবং উদ্ভাবন বাড়াতে উৎসাহিত করবে।’

বিশ্লেষকদের মতে, আর কয়েক মাস পরে লোকসভা ভোটে জয় নিয়ে আত্মবিশ্বাসী মোদী সরকার। তাই অন্তবর্তী বাজেটে কোনও জনমোহিনী বাজেট ঘোষণা করে চমক দেওয়ার চেষ্টা করা হয়নি।

অন্তর্বর্তীকালীন বাজেট পেশের পর দেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় বাজেট বরাদ্দ বৃদ্ধি না হওয়ার জন্য সমালোচনা করেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্যবৃদ্ধি, পেট্রল, ডিজেলের দাম বৃদ্ধি নিয়ে দেশবাসীকে নতুন কোনও আশা দেখাতে পারেনি কেন্দ্রীয় সরকার। এমনভাবেই আজকের বাজেটের সমালোচনা করল তৃণমূল কংগ্রেস।

বাজেট নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে তৃণমূল নেতা সুখেন্দু শেখর রায় জানিয়েছেন, নতুন কিছু নেই। কোনও দিশা নেই। শুধু কয়েকটি ঘোষণা করা হয়েছে। সেটাও শুধুমাত্র আসন্ন ভোটের দিকে তাকিয়ে।

অকালি দলের সাংসদ হরসিমরত কৌর বলছেন, এই বাজেট অন্তঃসারশূন্য। এখন থেকেই যেভাবে ক্ষমতায় ফেরার সরকারের ঔদ্ধত্যের বহিঃপ্রকাশ।

তবে এবারের বাজেট পেশ করে নতুন নজির গড়ে ফেললেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। এই নিয়ে টানা ষষ্ঠ বার বাজেট পেশ করলেন নির্মলা। আর এরই সঙ্গে তিনি ছাপিয়ে গেলেন পূর্বতন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি, মনমোহন সিংহ, পি চিদম্বরম, যশবন্ত সিনহাকে। তাঁরা সকলেই ৫টি করে বাজেট পেশ করতে পেরেছিলেন।

Top Stories

bottom of page