ফিচার

সন্মার্গ ফাউন্ডেশন তাদের পুরস্কার প্রদান উৎসবের ১৬ তম পর্বে কিছুটা পরিবর্তন করে 'রাম অবতার গুপ্ত প্রোৎসাহন ২০২১' নামে প্রকাশিত হতে চলেছে

১৯৪৬ সালে প্রতিষ্ঠিত কলকাতা কেন্দ্রীক হিন্দি 'দৈনিক সন্মার্গ' পূর্ব ভারতের একটি প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠান। স্বাধিকার এবং মানবতার ওপর ভিত্তি করে এই প্রতিষ্ঠানের সৃষ্টি করেছিলেন 'স্বামী করপতরি জি মহারাজ'। বাংলার ২৩টি রাজ্যের কোনায় কোনায় ছড়িয়ে পড়ার পাশাপাশি এই দৈনিক বর্তমানে পাটনা, ভুবনেশ্বর, কলকাতা এবং রাঁচি থেকে প্রকাশিত হয় এবং প্রিন্ট মিডিয়ার সঙ্গে সঙ্গে এটি ডিজিটাল মিডিয়াতেও সমান প্রতিষ্ঠিত।

'সন্মার্গ রিলিফ ফান্ড কলকাতা', যা বর্তমানে 'সন্মার্গ ফাউন্ডেশন' নামে খ্যাত, তা গড়ে ওঠে ২০০১ সালে। হিন্দি ভাষায় শিক্ষাদান, সামগ্রিকভাবে সকলের জন্য শিক্ষা প্রদানের উদ্দেশ্যে গড়ে ওঠে এই প্রতিষ্ঠান। হিন্দি সাহিত্যে উৎকর্ষতার পুরস্কার হিসেবে তথা এই বিষয় নিয়ে এগিয়ে যাবার জন্য পড়ুয়াদের 'প্রতিভা পুরস্কার' প্রদান শুরু হয় ২০০৬ সালে। পরে প্রয়াত সম্পাদক শ্রী রাম অবতার গুপ্তের নামে এই পুরস্কারটির নামকরণ করা হয় 'রাম অবতার গুপ্ত প্রতিভা পুরস্কার' নামে। সংস্থাটি সমাজের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন রকম অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। বিগত দেড় দশক ধরে এই পুরস্কার হিন্দি ভাষাকে অনন্য সম্মান প্রদান করেছে এবং হিন্দি ভাষা নিয়ে ছাত্রদের উচ্চস্তরীয় পড়াশোনা করতে, বৃত্তি প্রদান করেছে তথা ছাত্র, শিক্ষক এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হিন্দি ভাষাকে মান্যতা দেওয়ার ক্ষেত্রে এক অনন্য ভূমিকা নিয়েছে।

এই বছর ১৬তম পুরস্কার প্রদান উৎসব বর্ষের মুহূর্তে 'রাম অবতার গুপ্ত প্রতিভা পুরস্কার', 'রাম অবতার গুপ্ত প্রোৎসাহন পুরস্কার' নামে আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে। এছাড়াও এই বছর 'গুরু প্রণাম' নামে নতুন একটি পুরস্কারের শুরু হতে চলেছে, হিন্দি ভাষায় শিক্ষা প্রদানকারী শিক্ষকদের পুরস্কৃত করার লক্ষ্যে এবং এ বিষয়ে উত্তরবঙ্গে একটি বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

সন্মার্গ এন্ড ট্রাস্টি তথা সন্মার্গ ফাউন্ডেশনের ডিরেক্টর শ্রীমতি রুচিকা গুপ্তা জানান, "এই পুরস্কারের যোগ্যতার মানদন্ড অতিমারির কারণে একটু পাল্টানো হয়েছে, কিন্তু তা সত্ত্বেও প্রচুর আবেদন এসেছে সারা দেশ থেকে, যার কারনে আমরা সত্যিই আপ্লুত। ২০০৬-০৭ সালে যেখানে হিন্দিতে সর্বোচ্চ নম্বর আসত ৯০-৯২, সেখানে বর্তমানে পড়ুয়ারা ফুল মার্কস পাচ্ছে। এটি একটি যথেষ্ট সম্ভাবনাময় দিক হিন্দি সাহিত্যের ক্ষেত্রে। এই পুরস্কার হিন্দিতে আরও বেশি নম্বর তোলার জন্য সকলকে উৎসাহিত করছে। এই অতিমারির আবহে অনুষ্ঠানের কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে, কিন্তু মূল ব্যাপার একই থাকছে এবং এই বছর থেকে 'রাম অবতার গুপ্ত প্রোৎসাহন' নামে পুরস্কারটির প্রচার করা হবে"।


Written By

Swarnali Goswami