রাস্তার ধারে বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে বৃহদাকার একটি গাছ, নির্বিকার প্রশাসন

রাস্তার ধারে বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে বৃহদাকার একটি গাছ। তার নিচ দিয়ে চলছে ঝুঁকিবহুল যাতায়াত। প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরে জানিয়েও কোনো কাজ হয়নি বলে অভিযোগ এলাকাবাসীদের। ঘটনা পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদা থানার ঠাকুরচক এলাকায়। জানা যায় বেলদা কাঁথিগামী রাজ্য সড়কের কাছে ঠাকুরচকে বিশ্রামাগার সংলগ্ন স্থানে এক বৃহদাকার পূর্ণবয়স্ক শিরীষগাছ দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে মৃত অবস্থায় রয়েছে। যার কয়েকটি ডাল ইতিমধ্যে খসে পড়ছে। বিপদের সম্মুখীন হয়েছেন পথচলতি মানুষেরা। তবে সে যাত্রায় বড় কোনও বিপদের সম্মুখীন না হলেও বৃহত্তর বিপদের সম্মুখীন হয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে ওই গাছটি। যা জেনেও উদ্যোগ নিচ্ছে না প্রশাসন বলে অভিযোগ সচেতন এলাকাবাসীদের। তবে কি বৃহত্তর ঘটনা ঘটলে তার পরেই টনক নড়বে প্রশাসনের? এখন এটাই প্রশ্নচিহ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে এলাকাবাসীদের মনে। ঘটনায় আরও জানা যায় গাছটি রাজ্য সড়কের ধারে পিডব্লিউডি অর্থাৎ পরিবহন দফতরের সীমানার মধ্যে পড়ে যাওয়ায় পঞ্চায়েত বা প্রধানের তরফ থেকে তেমন কোনো ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি। তবে এটি পঞ্চায়েত এলাকায় হোক বা পরিবহন দপ্তরের এলাকায়, বিপদ কিন্তু পথচলতি মানুষের সন্নিকটে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। শুধুমাত্র গাছটি শুকনো অবস্থায় রয়েছে তাই নয় তার কাছেই রয়েছে উচ্চ বৈদ্যুতিক সম্পন্ন কিছু বিদ্যুতের তার ও খুঁটি, যা যে কোনো সময় ওই গাছের ডাল বা গাছটি ভেঙে পড়লে তা আরও বৃহত্তর বিপদের সম্মুখীন হওয়ার সংকেত দিচ্ছে। যদিও এসব দেখেও ঘুম ভাঙেনি প্রশাসনের এমনটাই অভিযোগ খোদ এলাকাবাসীদের। এখন দেখার এই বিপদ থেকে কবে নিস্তার পান এলাকার মানুষেরা। সেই দিকে তাকিয়ে এলাকাবাসীরা।

Carousel imageCarousel imageCarousel image

নিজস্ব সংবাদদাতা,

পশ্চিম মেদিনীপুর

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্ট দেখার পর সরকারের পদত্যাগ করা উচিত বললেন শুভেন্দু অধিকারী

বৃহস্পতিবার আচমকা গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সভাপতির পদ ও মোর্চার সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করলেন বিনয় তামাং


শালবনীর গোয়ালডিহিতে 'শিশু আলয়' নামে একটি মডেল অঙ্গনওয়াড়ির শুভ উদ্বোধন করলেন জেলাশাসক

বিজেপি কর্মীর বাড়িতে দুষ্কৃতীদের বোমাবাজি ব্যারাকপুরে

পেট্রোলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে চন্দ্রকোনারোড শহরে প্রতিবাদ মিছিল ব্লক তৃণমূলের ST সেলের

ভাটপাড়া পুরসভার মধ্যে গুলি কাণ্ডে ধৃত যুবক

পুরসভা কম্পাউন্ডে গুলি, ক্ষোভে পদত্যাগ ভাটপাড়ার পুর প্রশাসকের

পেলাগেড়িয়াতে দুর্ঘটনার কবলে মাল বোঝাই কন্টেনার,হতাহতের কোনো খবর নেই

ভারতীয় জনতা পার্টি শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলার তরফে একাধিক দাবি নিয়ে স্মারকলিপি

নিমতায় এক মাঝবয়সীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে ধৃত রিহ্যাব সেন্টারের দুইজন


এক ব্যবসায়ীর উদ্যোগে বেলাকোবার নাবালিকাকে বাড়ি ফেরানো গেল

দার্জিলিঙের ম্যালে কবি ভানুভক্ত আচার্য -র ২০৭ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন

নিজস্ব সংবাদদাতা

দার্জিলিং

কেশিয়াড়িতে সুগন্ধী ধান ও কৃষিজ সামগ্রী বিতরণ শিবির

নিজস্ব সংবাদদাতা

পশ্চিম মেদিনীপুর

টিটাগড় জুটমিল এবং পানিহাটি শিল্পাঞ্চলের কোভিড টিকাকরণ কর্মসূচী


নিজস্ব সংবাদদাতা

ব্যারাকপুর

পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে কেশপুরে বিক্ষোভ প্রদর্শন করলেন রাজ্যের পঞ্চায়েত দফতরের প্রতি মন্ত্রী শিউলি সাহা

পেট্রোপণ্যের লাগামছাড়া মূল্যবৃদ্ধি, তারই প্রতিবাদে রাজ্য তৃণমূলের নির্দেশ অনুসারে রাজ্য জুড়ে চলছে প্রতিবাদ বিক্ষোভ কর্মসূচি।

সেই মতই রবিবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশপুর বিধানসভার তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক তথা রাজ্যের পঞ্চায়েত দফতরের প্রতিমন্ত্রী শিউলি সাহার নেতৃত্বে কেশপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে পেট্রোলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হয়। কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের তুঘলকি শাসনের বিরুদ্ধে এবং পেট্রোল ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের মুল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে তৃণমূলের কর্মী ও সমর্থকেরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিন প্রতীকী প্রতিবাদ হিসাবে রাজ্যের প্রতিমন্ত্রী শিউলি সাহা কাঠের উনুনে জাল দিয়ে ভাত রান্না করেন মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের সাথে। তারপর অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি তে অংশগ্রহণ করেন।

সেই সঙ্গে কেশপুর ব্লকের ১১ নং অঞ্চলের কলাগ্রামে নরেন্দ্র মোদীর কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

কুশপুতলে আগুন দেন ১১ নম্বর অঞ্চলের তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি কাজী শাহাদাত। রাজ্যের পঞ্চায়েত দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী শিউলি সাহা বলেন পেট্রোল ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির ফলে প্রতিদিন জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে। যার ফলে অসহায় অবস্থার মধ্যে দিন কাটাতে হচ্ছে সাধারন মানুষদের। কিন্তু কেন্দ্রের বিজেপি সরকার পেট্রোল-ডিজেলের দাম কমাতে ব্যর্থ। তাই প্রতিদিন পেট্রোল ও ডিজেলের দাম বাড়ছে।তা সত্ত্বেও কেন্দ্রের বিজেপি সরকার নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে ।তাই তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে রবিবার কেশপুরে পেট্রল ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হয়

এদিনের কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেনরাজের প্রতি মন্ত্রী শিউলি সাহা ছাড়াও তৃণমূল কংগ্রেসের কেশপুর ব্লক এর সভাপতি উত্তমানন্দ ত্রিপাঠী, জেলা নেতৃত্ব চিত্ত রঞ্জন গরাই, সেখ হবিবুর রহমান সহ দলের অন্যান্য নেতৃত্বরা।

নিজস্ব সংবাদদাতা

পশ্চিম মেদিনীপুর

এবছর তিস্তা নদী ভয়ানক রূপ নিয়েছে, জলস্তর বাড়ছে প্রতি ঘন্টায়

আমাদের দেশ অনেকটাই নদীমাতৃক আর নদীকে ঘিরেই জীবন যাপন করে বহু মানুষ। জীবিকার অঙ্গ হিসেবে নদী তীরে বসবাসকারীদের নানা কাজ করতে দেখা যায়। আবার এই নদীই জীবন কেড়ে নেয়় তার ভয়াল রুদ্র রূপের কবলে পড়লে| সিকিম থেকে উৎপওি হয়েছে তিস্তা নদী যা অনেক জায়গা দিয়ে বয়ে বাংলাদেশের গিয়ে পড়েছে| শিলিগুড়ি থেকে কালীঝোড়া হয়ে সেবককে পিছনে ফেলে সিকিম যাওয়ার রাস্তায় পড়ে তিস্তা নদী গভীর খাতে বয়ে যাওয়া নদীর রূপ ভয়ঙ্কর হয় পাহাড়ে ভারী বৃষ্টি হলে| বহু বছর ধরে এই নদীর দু ধারে বসতি গড়ে উঠেছে। সিকিম থেকে বয়ে যাওয়া নদীর উপড় বাঁধ দিয়ে গড়ে উঠেছে জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র ভারত সরকারের উদ্যোগে বেশ কয়েক বছর পর জলবিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয় তখন থেকে এই এলাকাবাসীরা নানা অসুবিধার মধ্যে পড়েন। জীবিকার অধিকার কেড়ে নেয় সরকারী কিছু অবাস্তব পরিকল্পনা যার পেছনে রাজ্য ও কেন্দ্রের সরকার সমানভাবে দায়ী। আজও বহু মানুষ জমির পাট্টা পায় নি| প্রতিবছর জলস্তর বাড়ার ফলে ঘর বাড়ী ভেসে যায় সরকার তাদের অন্য জায়গায় জমির ব্যবস্থা করেনি তাই তাদের সবসময় আতঙ্কে থাকতে হয় | জলবিৎদ্যুৎ প্রকল্পের জন্যে কালীঝোড়ায় ধ্বস নামে একটু বৃষ্টি হলেই বলে অভিযোগ|

এক নাগাড়ে বৃষ্টিপাতের জন্যে তিস্তা নদীর জলস্তর বাড়ার ফলে তিস্তা নদীর তীরে বসবাস করে এমন একটি পরিবার তাদের অন্য জায়গায় চলে যেতে হয়েছে | বিশেষ করে সিকিমে অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের জন্যে বুধবার থেকে তিস্তা নদীর জলস্তর হঠাৎ বেড়ে যায় আজ বৃহস্পতিবার সকালে তিস্তা নদীর জলস্তর বিপদ সীমা অতিক্রম করে তিস্তার নদীর দু পাশে বসবাসকারীরা আতঙ্কিত হয়ে ওঠে। ঘরে বসবাসকারী পরিবারের সদস্যরা আগেই ঘর ছেড়ে নিরাপদ জায়গায় চলে যাওয়াতে জীবন হানি হয়নি তবে ঘরের সমস্ত অসবাবপত্র নদীর জলে ভেসে যায়, পরিবারের সদস্যরা নিজেদের আত্মীয়দের বাড়িতে আশ্রয় নেয়| উল্লেখ্য ত্রিবেনীতে কোভিড হাসপাতালের রাস্তায় জল চলে আসে। এবছর তিস্তা নদী ভয়ানক রূপ নিয়েছে, জলস্তর বাড়ছে প্রতি ঘন্টায়|


নিজস্ব সংবাদদাতা

দার্জিলিং


ব্লকের অর্থলগ্নি সংস্থাগুলো থেকে নিরাপত্তার বিষয় নিয়ে কেশিয়াড়িতে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে আলোচনা

ব্লকের অর্থলগ্নি সংস্থাগুলো থেকে যাতে কেউ প্রতারিত না হন সেই বিষয়ে এবং তাদের নিরাপত্তার বিষয় নিয়ে আলোচনা করল পুলিশ প্রশাসন। বৃহস্পতিবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশিয়াড়ির রবীন্দ্রভবনে কেশিয়াড়ী থানার পুলিশ, ব্লকের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক, গ্রাহক সেবা কেন্দ্র, পেট্রোল পাম্প এবং জুয়েলারী কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে বসে। তাদের নিরাপত্তা বিষয়ে খোঁজ নেয় পুলিশ। একই সঙ্গে তাদের নির্দেশ দেওয়া হয় যেন কেউ এই সব অর্থলগ্নি সংস্থাগুলি থেকে প্রতারিত না হয়। অনেক গ্রাহক সেবা কেন্দ্র থেকে টাকা জমা এবং তোলার বিষয়ে বিভিন্ন অসঙ্গতির অভিযোগ আসে। সেগুলি যাতে না হয় তাই নিয়ে আলোচনা করে এদিন পুলিশ। শুধু তাই নয়, ব্যাঙ্ক ও গ্রাহক সেবা কেন্দ্রগুলোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা বিষয়ে খোঁজ নেয় পুলিশ এবং সংস্থাগুলিকে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেওয়া হয়। গ্রাহকদের আরও সচেতন থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।




নিজস্ব প্রতিনিধি

পশ্চিম মেদিনীপুর








ডেবরা ব্লকের লোয়াদা ব্রিজ সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেওয়ার অনুমতি দিলেন রাজ্যের মন্ত্রী হুমায়ুন কবীর

বৃহস্পতিবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ডেবরা ব্লকের লোয়াদা ব্রিজ পরিদর্শন করেন রাজ্যের মন্ত্রী হুমায়ুন কবীর। ওই ব্রিজ পরিদর্শনের পর ব্রিজটি জনগণের জন্য খুলে দেওয়ার অনুমতি দিলেন ডেবরার বিধায়ক তথা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কারিগরী শিক্ষা দফতরের স্বাধীন দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত মন্ত্রী ড: হুমায়ুন কবীর। উল্লেখ্য, বাম রাজত্ব কাল থেকেই অসম্পূর্ণ হয়ে দীর্ঘদিন পড়েছিল এই ব্রিজ। যাতায়াতের সমস্যায় পড়তে হত বহু মানুষকে। অবশেষে মন্ত্রী হুমায়ুন কবীর এর চেষ্টায় লোয়াদা ব্রিজ টি চালু হওয়ায় খুশি এলাকার বাসিন্দারা।

লোয়াদা ব্রিজটি বৃহস্পতিবার থেকে জনগণের জন্য খুলে দেওয়া হয়। এবার থেকে এই ব্রিজ দিয়ে যাতায়াত করতে পারবে ছোট গাড়ি ও বাইক। ব্রিজে নিরাপত্তার জন্য থাকবে পুলিশ।

এদিন ব্রিজ পরিদর্শন করার সময় মন্ত্রী হুমায়ুন কবীর এর সাথে উপস্থিত ছিলেন খড়গপুর মহকুমার মহকুমা শাসক আজমল হোসেন, ডেবরা থানার ওসি সহ স্থানীয় প্রশাসনের আধিকারিক গণ।




নিজস্ব প্রতিনিধি

পশ্চিম মেদিনীপুর